বর্তমানের এই ডিজিটাল যুগে মানুষ পৃথিবীতে বসবাস করছে ডিজিটাল প্রযুক্তির মধ্য দিয়ে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করে।ইন্টারনেটের ব্যবহারের প্রসার ঘটায় সাথে সাথে ডিজিটাল মার্কেটিং ইন্ডাস্ট্রিতে মার্কেটারদের প্রচুর চাহিদা তৈরি হচ্ছে। প্রায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের বা ব্র্যান্ডেরই  তাদের প্রোডাক্ট এর প্রচারণা করার জন্য ডিজিটাল মার্কেটারের প্রয়োজন। 

মার্কেটিং মানে কি? মারকেটিং মানেটাই হচ্ছে প্রচার-প্রচারণা করা। আপনি লক্ষ্য করলে দেখবেন প্রায় প্রতিটি সরকারি অথবা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মার্কেটিং একটা ডিপার্টমেন্ট থাকে।এখানে ছাত্রছাত্রীরা শুধুমাত্র মার্কেটিং এর উপর এই পড়াশোনা করে। তারপরে বিভিন্ন কোম্পানির মার্কেটিং সেক্টরে জব করে। 


ডিজিটাল মার্কেটিং জব

ডিজিটাল মার্কেটিং এর জব গাইড লাইন

ইন্টারনেটের এই যুগে প্রচুর মানুষ এখন ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত রয়েছে। ডিজিটাল মার্কেটিং ইন্ডাস্ট্রিতে ডিজিটাল মার্কেটারদের একটি ডিমান্ড তৈরি হচ্ছে। আপনি যদি অলরেডি একজন মার্কেটার হয়ে থাকেন অথবা মার্কেটিং সেকশনে কাজ করছেন-তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং স্ট্রাটেজি গুলো শিখে নিতে পারলে আপনার অর্গানাইজেশনে আপনার মূল্যটা অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়ে যাবে ।

এছাড়াও আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং সেক্টরে কাজ করতে চান তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং স্ট্রাটেজি গুলো শিখে নিয়ে আমি আপনার পছন্দের কোন অর্গানাইজেশন এর সাথে একজন মার্কেটার হিসেবে কাজ করতে পারেন।


এখন আমি আপনাকে এমন কিছু কিছু সম্পর্ক জানাবো যেগুলো জানার পর আপনি নিজেকে একজন প্রফেশনাল ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে তুলে ধরতে পারবেন। এছাড়াও আপনি আপনার সিভিতে ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে মেনশন করে দিতে পারবেন।


Social Media Marketing


আমাদের মধ্যে প্রায় সকলেই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে থাকি। ফেইসবুক,  মেসেঞ্জার, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার,ইমো,ভাইবার ইত্যাদি সোশ্যাল মিডিয়া মাধ্যম। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আমরা এগুলো আমাদের  পার্সোনাল কাজের জন্য ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু এই টুলসগুলো প্রফেশনাল কাজে ব্যবহার করা যায়।


এর প্রত্যেকটি সফটওয়্যার দুটি অপশন আমাদেরকে প্রোভাইড করে থাকে। আর এই দুটি অপশন হলো-একটা হচ্ছে পার্সোনাল কাজে ব্যবহার করার জন্য এবং অপরটি হচ্ছে প্রফেশনাল ব্যবসায়ীক কাজে ব্যবহার করার জন্য। 


আপনি যেহেতু প্রফেশনাল মার্কেটের হিসেবে ডিজিটাল মার্কেটিং এর কাজ করবেন তাই আপনাকে এগুলোর প্রফেশনাল ব্যবহার শিখতে হবে। এই সফটওয়্যার গুলোতে  এমন ধরনের  টুলস দেওয়া আছে যেগুলো ব্যবহার করে খুব সহজে প্রচার-প্রচারণা করা যায়।



Google Adword


Google Adword ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক বড় একটা অংশ। ইউটিউব ভিডিওর আশেপাশে এবং বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আপনি যে অ্যাড গুলো দেখতে পান সেই  অ্যাডগুলো Google Adword এর মাধ্যমে প্রমোট করা হয়ে থাকে । বিভিন্ন ধরনের প্রতিষ্ঠান এই টুলসটিকে ব্যবহার করে থাকে তাদের ব্র্যান্ডকে প্রমোট করার জন্য।


একজন ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে Google Adword  এর ব্যবহার একদম  প্রফেশনাল ভাবে অর্থাৎ খুব ভাল করে শিখে নিতে হবে। ফেসবুক  অ্যাড ম্যানেজার এর মাধ্যমে মার্কেটিং করার জন্য যে সকল টুলস ব্যবহার করা হয়ে থাকে গুগল এডওয়ার্ড এর টুলসও প্রায় একই রকম। 


ফেসবুক এড ম্যানেজার এবং গুগলের ম্যানেজার এর ফাংশন এবং টুলস গুলো একই রকম। Google Adword  এখন ফেসবুক এড ম্যানেজারের মধ্যে তফাৎ শুধু একটাই সেটা হলো- ইন্টারফেসটি একটু ভিন্ন রকম। তাই এগুলোর একটি ব্যবহার ভালো করে শিখে  গেলে আপনি অপরটি এমনিতেই পারবেন।



Youtube Marketing


ডিজিটাল মার্কেটিং এর আরেকটি বড় অংশ হচ্ছে-ইউটিউব মার্কেটিং। সোশ্যাল মিডিয়া গুলোর পাশাপাশি ইউটিউবেও প্রচুর মানুষ সবসময় একটিভ থাকেন।  তাই বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ইউটিউবকে ব্যবহার করে থাকে তাদের প্রোডাক্ট ও সার্ভিস প্রমোট করার জন্য। 


এইসব কারণে ডিজিটাল মার্কেটিং ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতে হলে আপনাকে ইউটিউব মার্কেটিং সম্বন্ধে খুব ভালো একটি ধারণা থাকতে হবে।কারণ ইউটিউব অ্যাক্টিভ ইউজার প্রচুর পরিমাণে রয়েছে। 



Content Writing 


Content Writing ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনেক বড় একটি অংশ। এটা মূলত লেখালেখি করার একটি প্রফেশন।যে কোম্পানিতে আপনি জব করবেন সে কোম্পানির প্রোডাক্ট বা সার্ভিস রিলেটেড বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আপনাকে লেখালেখি করা জানতে হবে।


আপনি কোথায় Content Writing করবেন? সেই প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট বা তাদের ফেসবুক পেইজে বিভিন্ন জায়গায় সেই কোম্পানির প্রোডাক্ট-সার্ভিস বা বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে আপনি কনটেন্ট রাইটিং করবেন।



Search Engine Optimization


SEO এর পূর্ণরূপ আছে Search Engine OptimizationSEO এর ব্যবহার ইন্টারনেটে প্রায় সকল ক্ষেত্রেই দেখা যায়।সাধারণত একটি ওয়েবসাইটকে গুগলের  রেঙ্ক  করানোর জন্য সেরা একটি ট্রিক অবশ্যই SEO করতে হয়।  গুগোল একই বিষয়ের উপরে অনেক অনেক ওয়েবসাইট রয়েছে। 


আপনি যে প্রতিষ্ঠানের জন্য কাজ করবেন সেই প্রতিষ্ঠানের  ওয়েবসাইটকে গুগলের  প্রথমে আনার জন্য আপনাকে SEO  করতে হবে। মানুষ আপনার কোম্পানির প্রোডাক্ট ও সার্ভিস সমূহ সম্পর্কে সার্চ করলে  যেন আপনার কোম্পানির ওয়েবসাইট প্রথমে আসে । তাই ডিজিটাল মার্কেট হিসেবে SEO সম্পর্কে পূর্ণ ধারণা থাকা  খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।



উপরোক্ত দক্ষতা অর্জন করার পর আপনি নিজেকে একজন ডিজিটাল মার্কেটার হিসেবে পরিচয় দিতে পারবেন এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের একজন মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ হিসেবে কাজ করতে পারবেন

Post a Comment

ব্যাকলিংক পাওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে ইরিলেভেন্ট লিংক শেয়ার করার চেষ্টা করবেন না । স্পামিং করা থেকে বিরত থাকুন । আপনার লিংকটি যুক্তিসঙ্গত না হলে সেটি অ্যাপ্রুভ করা হবে না ।

নবীনতর পূর্বতন