ছবি এডিটিং সফটওয়্যার

ছবি এডিটিং সফটওয়্যার

একসময় শুধুমাত্র যোগাযোগের ক্ষেত্রে মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যেত। কিন্তু বর্তমানে এটি শুধুমাত্র একটি কাজে সীমাবদ্ধ না থেকে আপডেট হয়ে বহুগুণ এগিয়ে গিয়েছে। বর্তমানে মোবাইল ফোন ব্যবহার করে সহজেই নানা ধরনের কাজ করা যায়। 

যেমন ধরুন, আগে ফটো এডিটিং এবং ভিডিও এডিটিং করার জন্য অবশ্যই একটি কম্পিউটারের দরকার হতো। কিন্তু বর্তমানে ছবি এডিটিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে হাতের কাছে থাকা অ্যান্ড্রয়েড বা স্মার্টফোনের মাধ্যমে খুব সহজেই এ কাজটি করা যায়।

মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার জন্য দরকার একটি উন্নত ও ভালো ফিচার সম্বলিত ফটো এডিটিং অ্যাপ। বর্তমানে Google Play Store এ নানান ধরনের ফিচার সম্বলিত ফটো এডিটর রয়েছে।

আরো পড়ুন:

এখন প্রশ্ন হলো কোনটি সবচেয়ে সেরা এবং কোনটিতে সবচেয়ে ভালো ফিচারস রয়েছে? তাই আজকের এই টপিকে Google Play Store হতে বাছাইকৃত 2021 সালের সবচেয়ে সেরা ছবি ডিজাইন সফটওয়্যার গুলো নিয়ে আলোচনা  করা হলো। 

ফটোশপ এক্সপ্রেস (Photoshop Express)

ছবি ডিজাইন সফটওয়্যার

ফটো এক্সপ্রেস একটি অসাধারন এবং জনপ্রিয় ফটো এডিটিং সফটওয়্যারসবচেয়ে ভালো ফটো এডিটিং অ্যাপস গুলোর মধ্যে ফটোশপ এক্সপ্রেস হলো একটি জনপ্রিয় ও অন্যতম সফটওয়্যারএই অ্যাপসটি প্রতিষ্ঠিত করেছেন জনপ্রিয় সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাডোব100 মিলিয়নের বেশি সংখ্যক লোক এই অ্যাপসটি গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করেছেন

এই ছবি সাজানো সফটওয়্যারটিতে ফটো এডিটিং করার জন্য প্রায় সকল ফিচারস রয়েছে। যেমনঃ ফটো ক্রপিং, ফ্লিপং, রোটেটিং ইত্যাদি। আর এগুলো ছাড়াও এখানে রয়েছে- বিভিন্ন ধরনের ইফেক্ট, ওয়ান টাচ ফিল্টারিং, ফটো রেন্ডারিং, অটো ফিক্সিং, আরো অনেক কিছু। অ্যাডোব ফটোশপ এক্সপার্ট খুবই সোজা একটি ইউজার ফ্রেন্ডলি সফটওয়্যার বা অ্যাপস। এই অ্যাপসটি গুগল সফটওয়্যার হতে খুব সহজেই বিনামূল্যে ডাউনলোড ও ব্যবহার করা যাবে।

স্পেশাল ফিচারঃ-

-অ্যাপটিতে থাকছে ৮০ প্লাস ফিল্টারস

-রেস্পেক্টিভ কারেকশন সমর্থিত

-শক্তিশালী ফটো রেন্ডারিং ইঞ্জিন

-RAW ফর্মেট সমর্থিত

স্ন্যাপসিড (Snapseed)

ছবি সুন্দর করার সফটওয়্যার

আজকের এই টপিকে দ্বিতীয় স্থানে অবস্থান করছে স্ন্যাপসিড। বর্তমানে বহুল প্রচলিত এবং জনপ্রিয় একটি মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট সফটওয়্যার হলো স্ন্যাপসিড। বর্তমানে সফটওয়্যারটি সারা বিশ্বে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি সফটওয়্যার হিসেবে খ্যাত। কারণ এটি  গুগলের একটি অসাধারণ ফটো এডিটিং অ্যাপস। সবচেয়ে জনপ্রিয় হওয়ার প্রধান কারণ হল এর অসাধারণ কিছু টুলস রয়েছে। এখানে প্রায় 30 টি শক্তিশালী টুলস রয়েছে। যার সাহায্যে একটি করা চাই অসাধারণ ও প্রাণবন্ত।

বর্তমানে গুগল প্লে স্টোর থেকে 100 মিলিয়নেরও অনেক বেশি বার ডাউনলোড হয়েছে। আর এটি ডাউনলোডের সারা দিন দিন বেড়েই চলছে। এই অ্যাপসটির ইন্টারফেস খুবই সুন্দর এবং ইউজার ফ্রেন্ডলি একটি সহজ সফটওয়্যার। এর মাধ্যমে প্রফেশনাল মানের  ফটো ইডিট করা যায়। স্ন্যাপসিডে ফটো ফ্লিপং, হিলিং ব্রাশ,ক্রপিং,গ্ল্যামার গ্লো,ফটো রোটেটিং, ভিগনিটি, পোর্টরেটের মতো সকল প্রয়োজনীয় ফিচারস সহ সকল কিছুই রয়েছে।

অ্যাপসটির মাধ্যমে খুব সহজেই নিখুঁত, সুন্দর এবং প্রফেশনাল মানের ফটো এডিটিং করা সম্ভব। এই অ্যাপসটি গুগল প্লে স্টোর হতে খুব সহজেই বিনামূল্যে ডাউনলোড ও ব্যবহার করা যাবে। ফটোশপ এক্সপ্রেস এর মত এখানেও কোন অ্যাড করবে না যার ফলে। আপনাকে অন্য সকল অ্যাপস এর মত বিরক্তিকর এড এর সম্মুখীন হতে হবে না।

স্পেশাল ফিচারঃ-

-ছবির বিশেষ অংশে ইফেক্ট প্রয়োগ করার জন্য রয়েছে ব্রাশ মোড

-নেটিভ ডার্ক থিম মোড সমর্থিত

-RAW ফর্মেট সমর্থিত

পিক্স আর্ট স্টুডিও (PicsArt Studio)

ছবি এডিটিং সফটওয়্যার

আজকের লিস্টে থাকা তৃতীয় নাম্বার অ্যাপ্লিকেশন বা অ্যাপসটি হল পিক্স আর্ট স্টুডিও। ছবিকে নিখুঁতভাবে ডিজাইন ও কাস্টমাইজেশন করার জন্য যে সকল টুলস এর প্রয়োজন  তার প্রায় সকল টুলস এই অ্যাপস টি তে রয়েছে। তিন হাজারেরও বেশি  টুলস  পিক্স আর্ট অ্যাপটির মধ্যে রয়েছে অ্যাপটির মধ্যে রয়েছে। বর্তমানে গুগল প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপ্লিকেশনটি 500 মিলিয়নেরও বেশি বার ডাউনলোড হয়েছে। 

এই অ্যাপ্লিকেশনটিতে রয়েছে অটো ফিক্সিং, ড্র, ফ্রেম, ওয়ান টাচ ইফেক্ট, ক্রপ, কোলাজ, স্টিকারের মতো ফিচার। থাকছে বিল্ট-ইন ক্যামেরা এবং ডিরেক্ট সোশ্যাল শেয়ারিংয়ের সুবিধা। এরমধ্যে রয়েছে আরো অসাধারণ সব ফটো ফিল্টার্স এর কালেকশন। যেগুলো ছবির মধ্যে ইউনিক্স দিতে সক্ষম। শুধুমাত্র ফটো এডিটিং ছাড়াও   এখানে থাকা ড্রয়িং মোডওো অনেক ফিচারফুল।

অ্যাপ্লিকেশনটি গুগল প্লে স্টোর থেকে খুব সহজে বিনামূল্যে ডাউনলোড করা যায়।  তবে পিক্স আর্টের ফ্রি সংস্করণে অ্যাড ফ্রি ইউজার ইন্টারফেস নেই। যার কারণে আপনাকে বিরক্তিকর অ্যাড এর সম্মুখীন হতে হবে না। তাই এই অ্যাপ্লিকেশনটি এডিটিং অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে যে একটি নিঃসন্দেহে তা বলা যায়। আপনারা চাইলেই এর মাধ্যমে খুব সহজেই ফটো এডিটিং করতে পারেন।

স্পেশাল ফিচারঃ-

-এতে ছবির বিশেষ অংশে ইফেক্ট প্রয়োগ করার জন্য রয়েছে ব্রাশ মোড

-থাকছে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইফেক্ট যার সাহায্যে ছবিকে আরও আকর্ষণীয় করা সম্ভব

-লাইভ ইফেক্টের সাথে বিল্ট-ইন ক্যামেরা সমর্থিত

ইউক্যাম পারফেক্ট (YouCam Perfect)

কিভাবে ফটো এডিট করতে হয়

ইউক্যাম পারফেক্ট এমন একটা অ্যান্ড্রয়েড এপ্লিকেশন যা সহজে ব্যবহার করা যায়। আবার সেই যাতে এটিকে জনপ্রিয় সেলফি এডিটরও বলা হয়ে থাকে। এটি খুবই জনপ্রিয় এবং খুব ভালো ছবি সুন্দর করার সফটওয়্যার বা অ্যাপ। গুগল প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপসটি 100 মিলিয়নের বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে।

অ্যাপটিতে থাকা বিল্ট-ইন ক্যামেরা ফিচারের সাহায্যে সহজেই সেলফি তোলার পাশাপাশি ভিডিও সেলফি তুলতে পারবেন এবং খুব সহজেই এডিট করতে পারবেন।এককথায় একটি ফটো কি সুন্দর ও ভালোভাবে সাজিয়ে গুছিয়ে তুলতে হলে যে ধরনের টুলস থাকা প্রয়োজন তার সব বই এখানে প্যাক করা হয়েছে। যারা সেলফি তুলতে খুব ভালোবাসেন তারা এই অ্যাপটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। আশাকরি খুব ভালো লাগবে।

স্পেশাল ফিচারঃ-

-গ্রুপ সেলফি তুলার ক্ষেত্রে রয়েছে মাল্টিপল ফেস ডিটেকশন ফিচার

-ফটো হতে অবাঞ্ছিত বস্তু অপসারণের জন্য রয়েছে কাটআউট এবং রিমুভাল টুলস

-ইনস্ট্যান্ট 'এনহান্সমেন্ট' সমর্থিত

ফটো ল্যাব (Photo Lab) 

ছবি সাজানো সফটওয়্যার

আজকের এই তালিকায় থাকা আরো আরেকটি জনপ্রিয় ফটো এডিটিং অ্যাপ্লিকেশন হল ফটো ল্যাব।অ্যাপ্লিকেশনটির মাধ্যমে ছবির মধ্যে ইউনিক টাচ দেওয়া সম্ভব তা বলার অবকাশ রাখে না। 900 প্লাস ইফেক্ট রয়েছে এই অ্যাপ্লিকেশনটিতে। যেগুলোর মাধ্যমে ছবিকে আপনি আরো অসাধারণ লুক দিতে পারেন। এতে ফটো রোটেটিং, ফ্লিপং, ক্রপিং, হিলিং সহ সকল টুলসও রয়েছে।

আপনি চাইলে অ্যাপ্লিকেশনটিতে ফটো এডিট করার পর সেগুলো গ্যালারিতে সেভ করতে পারবেন অথবা চাইলে আপনি যেকোন সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে পারেন। প্লে স্টোর থেকে খুব সহজেই অ্যাপ্লিকেশনটি আপনি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

তবে এই অ্যাপ্লিকেশনটিতে একটি অপছন্দনীয় দিক রয়েছে। আর তা হলো ফটো এডিট করার পর ওয়াটারমার্ক টা থেকে যায়। আর তাছাড়া অ্যাপ্লিকেশনটিতে অ্যাড ফ্রী  ইউজার ইন্টারফেসও নেই।

স্পেশাল ফিচারঃ-

-অ্যাপটিতে থাকছে ৯০০+ ইফেক্ট

-ওয়ান টাচ ফটো এডিট সমর্থিত

-থাকছে অ্যাডভান্স ফেস ডিটেকশন আলগোরিদিম

শেষ কথা

আজকে মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার জন্য যে পাঁচটি অ্যাপ্লিকেশন শেয়ার করা হয়েছে সেগুলোর  মাধ্যমে ছবি এডিটিং করা একদম সহজ। অ্যাপ্লিকেশনগুলোর ভেতরে ঢুকলেই আপনি খুব সহজেই বুঝতে পারবেন যে কিভাবে ফটো এডিট করতে হয়।

আর এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো হল 2021 সালের সবচেয়ে সেরা ছবি এডিটিং সফটওয়্যার আর এগুলো সম্পূর্ণ ফ্রি উপরের বাছাইকৃত অ্যাপ্লিকেশনগুলোর মধ্য থেকে আপনি আপনার পছন্দমত যেকোন একটি এপ্লিকেশন ডাউনলোড করে নিতে পারেন প্লে স্টোর থেকে। আর আপনি আপনার ছবিগুলো করে ফেলতে পারেন আরো প্রাণবন্ত এবং  আকর্ষণীয়।

Post a Comment

ব্যাকলিংক পাওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে ইরিলেভেন্ট লিংক শেয়ার করার চেষ্টা করবেন না । স্পামিং করা থেকে বিরত থাকুন । আপনার লিংকটি যুক্তিসঙ্গত না হলে সেটি অ্যাপ্রুভ করা হবে না ।

অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো