ইমেজ এসইও করার উপায় 

ইমেজ এসইও

ইমেজ এসইও সম্পর্কে বেশিরভাগ মানুষেরই ধারণা নেই। অবশ্য নতুন ব্লগাররা এই ব্যাপারে খুব একটা জানেন না। আর ধারনা থাকলেও অনেকেই এটির সঠিক নিয়ম জানেন না। তাই আজকের এই টপিকে ইমেজ এসইও কি? কেন করবেন? কিভাবে ইমেজ এসইও করতে হয়? সে সম্পর্কে আপনাদের সাথে বিস্তারিত আলোচনা করব।

আরো পড়ুন: 

ইমেজ এসইও কি?

কোন একটি কিওয়ার্ড অনুযায়ী নির্দিষ্ট একটি ইমেজকে গুগলে রেঙ্ক করানোর জন্য যে সকল কাজ করা হয় তাকেই ইমেজ এসইও বলে। তাছাড়া কোনো একটি পোস্টকে নিদৃষ্ট কিওয়ার্ড অনুযায়ী রেংক করানোর জন্য ইমেজ এসইও খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

আপনি যদি গুগল থেকে বেশি বিষয় অর্গানিক ভিজিটর পেতে চান  এবং আপনার  ব্লগপোষ্টটিকে সবার প্রথমে নিয়ে আসতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই কিওয়ার্ড অনুযায়ী ইমেজ এসইও করতে হবে।

কিভাবে ইমেজ এসইও করতে হয়?

ধরে নিলাম আপনি “ব্লগিং করে আয়” এই কী-ওয়ার্ডটি দিয়ে গুগলে আপনার পোস্টকে প্রথম পেজে আনতে চান। তার জন্য এই কিওয়ার্ডের উপরে আপনি একটি এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখলেন এবং ইমেজও সংগ্রহ করলেন। 

তবে এক্ষেত্রে একটি ব্যাপার অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে, আপনার ইমেজটি যেন ইউনিক অথবা নিজের তৈরি করা ইমেজ হয়। তা না হলে আপনি কপিরাইট ক্লেইম খাবেন আর ইমেজ কখনো গুগলে রেংক করবে না। কপিরাইট ফ্রী ইমেজ কোথায় পাবেন সে সম্পর্কে আমাদের ওয়েবসাইটে আগেই একটি পোস্ট রয়েছে আপনি সেটি পড়ে নিতে পারেন। এবার ইমেজ এসইও করার পালা, কিন্তু কিভাবে ইমেজ এসইও করবেন? তাহলে চলুন ইমেজ এসইও কিভাবে করে সেটি শিখে নিই।

Image সাইজ অপটিমাইজ (MB):

সর্বপ্রথম যেই ইমেজটিকে এসইও করবেন সেই ইমেজটিকে কম্প্রেস করে নিতে হবে। অর্থাৎ, ইমেজের কোয়ালিটি নষ্ট করা ছাড়াই সাইজকে কমিয়ে আনা। এর জন্য সর্বপ্রথম আপনাকে চলে যেতে হবে tinypng.com এই ওয়েবসাইটটিতে। তারপর নিচের বক্স অপশনটিতে ক্লিক করুন এবং আপনার ইমেজটি সিলেক্ট করে ওপেন করে দিন।

ইমেজ এসইও

এবার নিচের ডাউনলোড অপশন থেকে ইমেজটি ডাউনলোড করে নিন।

ইমেজ এসইও


Image রিনেম করা

ইমেজ রিনেম করার জন্য আপনার সেই ডাউনলোড করা ইমেজটিতে চলে যান। তারপর সেই ইমেজটিকে আপনার কিওয়ার্ড অর্থাৎ “ব্লগিং-করে-আয়” এটি দিয়ে রিনেম অপশন থেকে রিনেম করে নিন।
 
ঠিক নিচের দেখানো ছবিটির মত। তবে মনে রাখবেন ইমেজ রিনেম করার সময় নামের মাঝে যেন কোন ফাঁকা জায়গা না থাকে। অর্থাৎ আপনি স্পেস এর জায়গায় - এই চিহ্নটি ব্যবহার করবেন। নিচের পূর্ববর্তী এবং পরবর্তী এই রিনেমের ছবিটি ভালোভাবে লক্ষ্য করলেই বুঝতে পারবেন।

ইমেজ এসইও

এবার এখন ছবিটি আপনি আপনার ব্লগের আর্টিকেল এর মধ্যে যে জায়গায় দিতে চান সেই জায়গায় আপলোড করে দিন।

Alt Tags যুক্ত করাঃ 

আপলোড করার পর পুনরায় ইমেজ টি তে ক্লিক করে নিচের দেখানো অপশনটিতে ক্লিক করুন।

ইমেজ এসইও

এবার এই দুইটি অপশনে আপনার মূল কী-ওয়ার্ডটি বসিয়ে আপডেট করে দিন।

ইমেজ এসইও


এই সম্পূর্ণ কাজটুকুই হলো ইমেজ এসইও। এভাবে ইমেজ এসইও করার মাধ্যমে আপনি যেকোন ইমেজকে গুগল সার্চের প্রথমে নিয়ে আসতে পারবেন। 

আশাকরি Image Optimization Seo খুব ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন। বুঝতে কোথাও কোনো সমস্যা হলে নিচের কমেন্ট বক্সে আমাদের অবশ্যই জানাবেন। সেইসাথে আর্টিকেলটি কেমন লেগেছে সে সম্পর্কে আপনার মূল্যবান মতামতটি জানাতে ভুলবেন না। 

2 মন্তব্যসমূহ

ব্যাকলিংক পাওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে ইরিলেভেন্ট লিংক শেয়ার করার চেষ্টা করবেন না । স্পামিং করা থেকে বিরত থাকুন । আপনার লিংকটি যুক্তিসঙ্গত না হলে সেটি অ্যাপ্রুভ করা হবে না ।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

ব্যাকলিংক পাওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে ইরিলেভেন্ট লিংক শেয়ার করার চেষ্টা করবেন না । স্পামিং করা থেকে বিরত থাকুন । আপনার লিংকটি যুক্তিসঙ্গত না হলে সেটি অ্যাপ্রুভ করা হবে না ।

নবীনতর পূর্বতন